কোম্পানীগঞ্জের ক্লোজারে মাছের আড়তদার র‌্যাবের হাতে আটক, স্থানীদের রাস্তায় ব্যারিকেড়

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায়  র‌্যাব ১১ সদস্যরা মুছাপুর ইউনিয়নের ক্লোজার এলাকা থেকে আলী আকবর জালাল (৩৩) নামের  এক মাছের আড়ৎদার  কে   আটক  করেছে। গাছের গুড়ি ফেলে স্থানীদের রাস্তা ব্যারিকেড়। এঘটনা ঘটে আজ শনিবার সন্ধ্যা ৭ টায় ক্লোজার এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মুছাপুর  ৭ নং ওয়ার্ডের ক্লোজার এলাকায় সন্ধ্যা ৬ টায় একটি   চা দোকান থেকে চা খেয়ে বের হয়  মৎস্য আড়ৎ ব্যবসায়ী আলী আকবর  জালাল, এ সময়ে দুই জন সাদা পোশাধারী র‌্যাব সদস্য তাকে আটক করে। পরে স্থানীয়  লোকজন র‌্যাব সদস্যদের পরিচয় জানতে চাইলে র‌্যাব সদস্যরা  পোশক পরে  তাদের পরিচয় দেয়।

পরে জালালকে আটকের খবর জানাজানি  হলে এলাকার নারী পুরুষ র‌্যাবের কাছে জালালকে আটকের কারন জানতে চায়। র‌্যাব এসময়ে সুনির্দিষ্ট মামলার বিষয়ে  জানাতে না পারায় ৪ ঘন্টা ধরে   তাদের গাড়ী ঘেরাও করে রাখে এবং রাস্তায়  গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ  করে রাখে স্থানীয়  লোকজন।

পরে অতিরিক্ত র‌্যাব সদস্যরা  এসে রাস্তায় ব্যারিকেড় ভেঙ্গে গ্রেফতারের ৪ ঘন্টা পর  আলী আকবর  জালাল কে ঘটনাস্থল থেকে  র‌্যাব ১১ কার্যালয়ে  নিয়ে যায়। 

এ ব্যাপারে মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,আলী আকবর জালাল একজন জনদরদী ব্যক্তি, এলাকার গরীব, এতিম ও নিরীহ মানুষের সুখে, দুঃখে পাশে দাঁড়ান। তার ব্যবসার আয়ের আশি শতাংশ টাকা মানুষের জন্য ব্যায় করেন। এলাকায় মানুষের কাছে  তাদের পরিবারের জনপ্রিয়তা রয়েছে। ক্ষোভে জনতা র‌্যাবের গাড়ী ব্যারিকেড় দেয়।  তার বড় ভাই জাহাঙ্গীর অত্র ওয়ার্ডের (৭নং) বর্তমানে একজন  ইউপি সদস্য।

এ ব্যাপার কোম্পানীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মো: সাদেকুর  রহমান এর সাথে আলাপ করা হলে তিনি জানান, আমি আসার পর থেকে জালালের   বিরুদ্ধে  কোন মামলা হয়নি। আমি আসার পূর্বে  কোন মামলা আছে  কিনা তা খতিয়ে  দেখতে হবে।

অভিযানে থাকা আলমগীর হোসেন নামে এক  র‌্যাব সদস্যের সাথে মোবাইলে জালালকে গ্রেফতারের  বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এব্যাপারে আমার জানানেই । আপনাকে পরে জানাবো। 


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.