অকৃতকার্যদের আবারও ভালো করে পড়াশুনা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় কৃতকার্যদের আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘কৃতকার্যদের অভিনন্দন, অভিভাবকদেরও অভিনন্দন। সকলেই কষ্ট করেছেন। যারা কৃতকার্য হতে পারেনি… আমরা জানি, মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে পড়াশুনার সমস্যা হয়েছে। তাদের আবার ভালোভাবে পড়াশুনা করতে হবে। অকৃতকার্য হলেও সব বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হবে না। যে বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে সে বিষয়ের পরীক্ষা পরের বছর দিয়ে পাশ করতে হবে। পাশাপাশি তারা পরবর্তী শ্রেণির কার্যক্রমটা চালিয়ে নিতে পারবে। তারা পিছিয়ে থাকবে না। সে ব্যবস্থা আমরা করে দিয়েছি। এ বিষয়ে অভিভাবকদের এগিয়ে আসতে হবে। অভিভাবকরা শুধু অভিভাবকই নন, কিছু ক্ষেত্রে তাদের শিক্ষকের ভূমিকা পালন করতে হবে।’

আজ বৃহস্পতিবার মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নতুন বই বিতরণ কার্যক্রমেরও উদ্বোধন করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নতুন বই হাতে নেওয়ার আনন্দই আলাদা। নতুন বই হাতে পাওয়া, বইয়ের ঘ্রাণ নেওয়া, বইয়ে নিজের নাম লেখা, মলাট দেওয়া- এসবের আনন্দই আলাদা। ছোটবেলায় নতুন বই হাতে পেলে আনন্দ লাগতো। নতুন বই সরকার বিনামূল্যে বিতরণ করায় অভিভাবকদের পয়সা খরচ হচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা আগামীতে নেতৃত্ব দেবে। তাদের আমরা সেভাবে গড়ে তুলতে চাই।’তিনি আরও বলেন, ‘দৃষ্টি প্রতিবন্দ্বীরা যাতে পিছিয়ে না থাকে সে জন্য ব্রেইল পদ্ধতিতে তৈরি বই বিতরণ করছি। নৃগোষ্ঠীর মানুষের ভাষায় বই তৈরি করে দিচ্ছি; যাতে তারা নিজেদের ভাষাটা ভুলে না যায়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা না থাকলেও প্রতি বছর নতুন বই বিতরণ করছি। যাতে শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে পড়াশুনা করতে পারে। শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় সংসদ টেলিভিশন ও বিটিভি শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে।’তিনি আরও বলেন, ‘অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালু থাকবে। এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে পদক্ষেপ নিতে হবে। অনলাইন শিক্ষা যাতে ঘরে ঘরে পৌঁছায় সে ব্যবস্থা নিতে হবে। শিক্ষার্থীরা যাতে অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রমে প্রবেশাধিকার পায় তার জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ আমরা সরবরাহ করবো।’

প্রধানমন্ত্রী সবার করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা নেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, ‘কেউ যাতে টিকার বাইরে না থাকে। টিকা প্রদান কার্যক্রম আমরা তৃণমূলে নিয়ে যেতে চাই। টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে কারও কারও অনাগ্রহ দেখা যাচ্ছে। সবাইকে টিকা নিতে হবে।’


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.