কোম্পানীগঞ্জে ঈদের নতুন পোশাক ও মেহেদী না পেয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি ::  নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ঈদে নতুন পোশাক ও মেহেদীর আবদার পূরণ না হওয়ায় বড় ভাইয়ের ওপর অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে পঞ্চম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী।

শুক্রবার (৩১ জুলাই) রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হক পাড়ায় নোয়ার নাতির বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত স্কুলছাত্রী সোনিয়া আক্তার (১১) একই ওয়ার্ডের আবুল খায়ের’র মেয়ে এবং সিরাজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রবিউল হক রাত ১২টার দিকে সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, নিহত সোনিয়া তার ভাইয়ের কাছে ঈদে নতুন পোশাক,জুতা ও মেহেদীর বায়না করে। কিন্তু নিহতের বড় ভাইয়ের উপার্জন না থাকায় বোনের আবদার রক্ষায় অপারগতা প্রকাশ করেন। এ নিয়ে অভিমান করে পরিবারের সদস্যদের অগোচরে বসত ঘরের একটি কক্ষে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে।

তিনি আরও জানান, পরে ওই শিক্ষার্থীকে মুমূর্ষু অবস্থায় স্বজনেরা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথে তার মৃত্যু হয়। শনিবার সকালে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হবে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হবে।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.