কোম্পানীগঞ্জে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের আলোচিত গাংচিলের শিশু ফারুক (১২) হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামিকে রোববার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত মো. বেলাল উদ্দিন (৪৫), কোম্পানীগঞ্জে চর এলাহী ইউনিয়নের দক্ষিণ গাংচিল আবাসনের খুরশিদ আলম’র ছেলে।

কোম্পানীগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.মোস্তাফিজুর রহমান’র নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে নোয়াখালীর চরজব্বর থানার রেনু বাজার থেকে গতকাল শনিবার তাকে গ্রেফতার করে। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৯ সালের ১৪ মার্চ  দক্ষিণ গাংচিলের  মো. সিরাজ উদ্দিন’র এক মাত্র ছেলে ভিকটিম ফারুক (১২) কে  ঘটনার দিন শনিবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে মামলার ১ নং আসামী মো. বেলাল উদ্দিন, ভিকটিম ফারুক কে তার মামার চা-দোকান  থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিম কে খুজে পাওয়া না গেলে সকলের সন্দেহ হয়। পরবর্তীতে ৪ দিন পর এলাকার লোকজন দেখতে পান যে, গাংচিল আবাসন প্রকল্পের ৫নং ঘরের পিছনে গন-লেন্ট্রিনের সেফটি ট্যাংকি এর স্ল্যাভ এর ভিতরে ভিকটিম ফারুকের পা দেখতে পায়, পরবর্তীতে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ ভিকটিমের লাশ উদ্ধার করিয়া সুরতহাল রিপোর্ট করিয়া লাশ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  

পররর্তীতে ফারুক কে খুন করে লাশ গোপন করার অপরাধ বিজ্ঞ আদালতে প্রমাণিত হওয়ায় আসামিকে বাংলাদেশ দন্ডবিধি আইনের ৩০৩/৩৪ ধারা মোতাবেক দোষী সাব্যস্ত করিয়া যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং ১০(দশ) হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ০১(এক) বছরের সশ্রম করাদন্ড এবং দন্ডবিধি ২০১ ধারা দোষী সাব্যস্থ করিয়া ০২(দুই) বছরের সশ্রম করাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। কিন্তু আসামি ঘটনার পর হইতে কখনো রাঙ্গামাটি, ঢাকা, হাতিয়া, ভোলায় আত্মগোপনে চলে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আরিফুর রহমান যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.