৪৬ বছর পর সোনাগাজীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল হত্যা মামলা আদালতে

0
87

ফেনী সংবাদদাতা :: হত্যাকাণ্ডের ৪৬ বছর পর ফেনীর সোনাগাজীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শহীদ নুরুল আফছার হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। ফেনীর জ‍্যেষ্ঠ বিচার বিভাগীয় হাকিম আমলি আদালত ১ এর বিচারক মুহাম্মদ সিরাজ উদ্দিন ইকবালের আদালতে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলাটির পিটিশন দায়ের করা হয়। মামলার বাদী  শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল আফছারের ছোট ভাই ইতালী প্রবাসী গোলাম কিবরিয়া বাবুল।

বাদীপক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম নান্টু জানান, আদালত বাদীর জবানবন্দি শুনে মামলার আরজি গ্রহণ করেন এবং আদেশের অপেক্ষায় রেখেছেন। এদিন আদেশ দেওয়া হয়নি বলে জানান সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) হাফেজ আহাম্মদ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মামলায় সোনাগাজী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সৈয়দ নাছির উদ্দিন, সাবেক কমান্ডার মোশারফ হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম কাজি ও রাজাকার শাহজাহান আকবরের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো সাতজনকে আসামি করা হয়েছে।

সোনাগাজী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের মুক্তিযোদ্ধারা জানান, বর্তমান কমান্ডার নাছির উদ্দিন ও রাজাকার কমান্ডার শাহজাহান আকবর আপন সহোদর। ৭১ সালের ডিসেম্বরে পরাজয় নিশ্চিত জেনে তালিকাভুক্ত রাজাকার কমান্ডার শাহজাহান পালিয়ে যাওয়ার সময় মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আফছার তাকে আটক করে। ভাইকে রক্ষা করতেই নাছির উদ্দিন ও তার সহযোগীরা বিজয়ের পূর্ব মুহূর্তে ১১ ডিসেম্বর ভোরে নুরুল আফছারকে হত্যা করে। তারা আরো জানান, নুরুল আফছারকে হত্যার পর বিষয়টি যেন অন্য মুক্তিযোদ্ধারা বুঝতে না পারে সেজন্য রাজাকারদের হামলায় নিহত হয়েছে বলে প্রচার চালিয়ে তড়িঘড়ি নুরুল আফছারের মৃতদেহ দাফন করা হয়।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার ইসমাইল হোসেন জানান, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নুরুল আফছার সোনাগাজী অঞ্চলে ভারত থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রথম মুক্তিযোদ্ধা। তিনি উপজেলার বাদামতলি গ্রামের রশিদ মেম্বার বাড়িতে ক্যাম্প করে উপজেলার সর্বত্র গেরিলা যুদ্ধে নেতৃত্ব দেন।  মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আফছার সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের ফরাজী বাড়ির মৌলভী আহম্মদ করিমের বড় ছেলে তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে