স্বাধীনতা দিবসে দু’টি কবিতা

0
30
https://www.noakhalitimes.com

স্বাধীনতার গল্প
———————————-
অতীত ইতিহাস সম্পর্কে 
জানার ইচ্ছা আমার,
দাদার মুখে গল্প শুনি
প্রিয় স্বাধীনতার।
পাক সেনারা আগুন দিয়ে
পুড়লো ঘরের চালা,
লুন্ঠন করলো জিনিস পত্র
মায়ের হাতের বালা।
জীবন দিল অকাতরে
দেশের লাখো মানুষ,
যুদ্ধ শেষে বীরের বেশে
উড়ায় রঙিন ফানুস। 
এদেশেতে জন্ম আমার
গর্বের নেই শেষ,
গাছ গাছালি পাখপাখালি 
সবই লাগে বেশ।
 
কবি : মঞ্জুর মোর্শেদ রুমন  

স্বাধীনতা
———————————–
স্বাধীনতা তোমাকে পেলাম রক্তের বিনিময়ে,
সে কথা গাঁথা আছে সকল বাঙালির  হৃদয়ে।
ত্রিশ লক্ষ বাঙালির  স্মৃতিতে সেই দিনগুলি
অন্যায়, অত্যাচার আর নিপীড়নে ভরা কি করে ভুলি!

স্বাধীনতা তোমায় কিনেছিল রক্তের দামে,
তোমাকে পেয়েছি আমরা যুদ্ধ করে ত্যাগের মাধ্যমে।
পরাধীন বাঙালি জাতীকে এনে দিল স্বাধীনতা,
এমনই বীর যোদ্ধাদের মহানুভবতা।

স্বাধীনতা তোমাকে পাবার আশায়,
বাংলার দামাল ছেলেরা প্রাণ দিল মমতায়।
আজ সুজলা- সুফলা, শস্য-শ্যামলা রূপ তোমার,
এ তো ত্যাগের বিনিময়ে সকল বাঙালির। 
স্বাধীনতার জন্য যুদ্ধে গেল দামাল ছেলের দল,
তাদের জন্য শেষ হয় না মায়ের চোখের জল।
মুক্তিযোদ্ধারা  নিজের স্বার্থ ত্যাগ করে,
দিয়েছিল বাংলার মানুষের ভাগ্য গড়ে।

পরাধীন বাঙালি জাতিকে দিল শান্তির বাণী,
ইতিহাসে গাঁথা আছে সেই সব কাহিনী।
মরণেও হয়েছে তারা অমর, চিরঅম্লান,
যারা জীবনের বিনিময়ে রেখে গেছে অবদান।

স্বাধীনতা তোমাকে পাবার জন্য,
জীবন দিয়েছে যারা, তারা ধন্য।
হে সাহসী মহান বীর মুক্তিযোদ্ধা  
তোমাদের জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা।
তোমাদের ত্যাগের বিনিময়ে পেলাম স্বাধীনতা,
দূর হলো সকল বাঁধা আর পরাধীনতা।

কবি : ফেরদৌসী খানম রীনা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে