সাঁতারে শেষ ঢাবি ছাত্র নোয়াখালীর নুর উদ্দিন জনির স্বপ্ন

0
21

নিউজ ডেস্ক :: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের পুকুরে সাঁতার কাটতে গিয়ে তলিয়ে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নুর উদ্দিন জনি (২০) বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী।

জনি নোয়াখালীর সুধারাম উপজেলার লক্ষ্মী নারায়ণপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী জসীম উদ্দিনের ছেলে। দুই ভাই-বোনের মধ্যে তিনি বড় ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজলুল হক হলে থাকতেন জনি। সোমবার সকাল ১০টার দিকে বন্ধু মশিউরের সঙ্গে সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের পুকুরে গোসল করতে নামেন তিনি।

মশিউর জানিয়েছেন, গোসলের এক পর্যায়ে পুকুর সাঁতরে পার হওয়ার চেষ্টা করেন জনি। কিন্তু মাঝপুকুরে গিয়ে সে ক্লান্ত হয়ে পড়ে। এ সময় বারবার বাঁচার জন্য আকুতি জানিয়েও লাভ হয়নি। নিজের অবস্থা ভালো ছিল না বলে মশিউর বন্ধুকে বাঁচাতে যেতে পারেননি বলে জানান। তবে তিনি জনি যখন ডুবে যাচ্ছিল, তাকে বাঁচানোর জন্য চিৎকার করে সাহায্য চাইতে থাকেন। এ সময় আশপাশের লোকজন ছুটে এলেও তারা কেউ জনিকে বাঁচাতে পুকুরে নামেননি।

হলের ছাত্ররা জানান, হইচই শুনে তারা এগিয়ে গিয়ে দেখেন জনি পানিতে তলিয়ে গেছেন।

খবর পেয়ে শাহবাগ থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল গিয়ে সকাল সাড়ে ১০টায় জনিকে উদ্ধার করে। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের ডিউটি অফিসার আতাউর রহমান জানান, সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে গিয়ে জনিকে উদ্ধার করা হয়। তবে তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

এদিকে সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে জনির মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্ত ছাড়া গ্রামের বাড়ি নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে