সর্বশেষ

কোম্পানীগঞ্জে প্রেমের টানে বাড়ি ছেড়ে না পালানোর শপথ নিল ২০০ স্কুলছাত্রী

কোম্পানীগঞ্জে প্রেমের টানে বাড়ি ছেড়ে না পালানোর শপথ নিল ২০০ স্কুলছাত্রী

www.noakhalitimes.com
কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় প্রেমের টানে বাড়ি ছেড়ে না পালানোর শপথ করলেন নবম ও দশম শ্রেণির প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী। রোববার (২২ মে) দুপুরে উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের বামনী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ শপথ ও সচেতনতা সভার আয়োজন করা হয়।

সচেতনতা সভায় শপথ পাঠ করান, কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান। 

এ সময় তিনি বলেন, মাদক, বাল্যবিয়ে, পালিয়ে বিয়ে করা, কিশোর গ্যাং, ইভটিজিং ইত্যাদি চলমান সামাজিক সমস্যা প্রতিরোধে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য তোমাদের সাথে কথা বলতে এসেছি। দিন দিন এসব সমস্যা প্রকোট আকার ধারণ করছে। সবাইকে বলছি, সবার আগে নিজের ও পরিবারের ভাল বুঝতে হবে। 

মিজানুর রহমান বলেন, সবাই আমার সঙ্গে শপথ করো, কখনো প্রেম করে পালিয়ে যাবে না, পরিবারকে কষ্ট দেবে না। ইভটিজিং, বাল্যবিয়ে, অসম প্রেম, অপ্রাপ্ত বয়স্ক কিশোর-কিশোরীদের পলায়ন সমাজে ব্যাধি হিসেবে যেনো রুপান্তরিত না হয়, এ কারণেই সবাইকে সচেতন হতে হবে। পর্যায়ক্রমে সব বিদ্যালয়ে এ ধরনের শপথের আয়োজন করা হবে।

www.noakhalitimes.com
কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম মিজানুর রহমান বলেন, আইনে বাল্যবিয়েকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। যেকোনো মূল্যে এটা প্রতিহত করতে হবে। বাল্যবিয়ে একটি মেয়ের বড় হওয়ার পথে বড় বাধা। অপ্রাপ্ত বয়সে পালিয়ে গিয়ে নানা সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়। সবাইকে বোঝাতে হবে, লেখাপড়া শেষ করে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর পরই মেয়েদের বিয়ে করা উচিত। তাই এমন শপথের আয়োজন করা হয়েছে। 

সচেতনতা সভায় বামনী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দসহ কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

প্রসঙ্গত, এর আগে বুধবার (১৮ মে) দুপুরে থানার ওপন হাউজ ডে অনুষ্ঠানে এসএম মিজানুর রহমান বলেন, ‘কোম্পানীগঞ্জে গত এক সপ্তাহে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের নবম-দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ১৩ ছাত্রী প্রেমের টানে উধাও হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করে বেশ কয়েকজনকে উদ্ধার করা হয়েছে।’ 

সুবর্ণচরে একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে হাইকোর্ট বিভাগের চার বিচারপতি

সুবর্ণচরে একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে হাইকোর্ট বিভাগের চার বিচারপতি

www.noakhalitimes.com
সূবর্ণচর (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ওয়াপদা গ্রামে একটি সমাজিক অনুষ্ঠানে সুপ্রীম কোর্টের চারজন বিচারপতি উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা হলেন হলেন বিচারপতি মোঃ আশরাফুল কামাল, বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম, বিচারপতি মোহাম্মদ আলী ও বিচারপতি আহমেদ সোহেল। শুক্রবার বিকালে এ চার বিচারপতির উপস্থিতিতে জেলার সুবর্ণচর উপজেলার ওয়াপদা গ্রামে হাজী আবদুর রব মিয়া জামে মসজিদের নতুন ভবনের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয়।

এসময় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিচারপতি মোঃ আশরাফুল কামাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চর ওয়াপদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান ভুঁইয়া, নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং নিউজ ২৪ ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের জেলা প্রতিনিধি আকবর হোসেন সোহাগ।

মসজিদ কমিটির সভাপতি ডা. মো. বাহার উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম, বিচারপতি মোহাম্মদ আলী, বিচারপতি আহমেদ সোহেল, হাতিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আমান উল্যাহ, সুবর্ণচর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) আরিফুর রহমান, চরজব্বর থানার ওসি মো. জিয়াউল হক।

এসময় বিশিষ্ট সমাজ সেবক ইসমাইল মিয়া, দুলাল উদ্দিন কিরনসহ মসজিদ কমিটির সদস্যগণ, সাংবাদিক, রাজনিতিক, জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে মসজিদের উন্নয়নের কাজের জন্য প্রধান অতিথিসহ অতিথিগণ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে বিচারপতি আশরাফুল কামালসহ চার বিচারপতিকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন মসজিদ কমিটির সদস্যগণ ও এলাকাবাসী।

সেনবাগে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

সেনবাগে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

www.noakhalitimes.com
সেনবাগ (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীর সেনবাগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট (অনুর্ধ -১৭) উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে সেনবাগ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উক্ত টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন সেনবাগ -সোনাইমুড়ি আসনের সংসদ সদস্য, আরটিভির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোরশেদ আলম।

সেনবাগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুন নাহারের সভাপতিত্বে ও নূর হোসাইন সুমনের সঞ্চালনায় উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেনবাগ পৌরসভার মেয়র আবু নাছের ভিপি দুলাল, সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ ইকবাল হোসেন পাটোয়ারি, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন আহবায়ক ও ডমুরুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শওকত হোসেন কানন, অর্জুনতলা ইউপির চেয়ারম্যান আবদুল ওহাব বিএসসি, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন ভূঁইয়া,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা অখিল শিকারী, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী মাহমুদুল হক মিরন, সংসদ সদস্যের স্থানীয় প্রতিনিধি, আওয়ামী লীগ নেতা আলী আক্কাস রতন,উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মিজানুর রহমান মিঠু, যুগ্ন আহবায়ক আলমগীর হোসেন রানা।

এ সময় বেলুন উড়িয়ে অথিতিবৃন্দ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন। ১ম খেলায় সেনবাগ পৌর সভা দল ৪-১ গোলে অর্জুনতলা ইউনিয়ন দলকে পরাজিত করে। দ্বিতীয় খেলায় গাজীরহাট উচ্চ বিদ্যালয় ভেন্যুতে কাদরা ইউনিয়ন ৩-২ গোলে ছাতারপাইয়া ইউনিয়ন কে পরাজিত করে।

অপর ভেন্যু রামেন্দ্র মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নবীপুর ইউনিয়ন দল না আসায় বীজবাগ ইউনিয়ন দলকে এবং বয়স জনিত বিধি ভঙ্গের কারনে মোহাম্মদপুর ইউনিয়ন দলকে বাদ দিয়ে কাবিলপুর ইউনিয়ন দলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ইতিহাসে মাইলফলক: রাষ্ট্রপতি

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ইতিহাসে মাইলফলক: রাষ্ট্রপতি

www.noakhalitimes.com
নিউজ ডেস্ক :: শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন বাংলাদেশের গণতন্ত্রের ইতিহাসে একটি মাইলফলক বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

মঙ্গলবার (১৭ মে) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।

আবদুল হামিদ বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে জাতি পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতাবিরোধী ঘাতকচক্রের হাতে সপরিবারে নির্মমভাবে নিহত হন। এ সময় তাঁর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা তৎকালীন পশ্চিম জার্মানিতে অবস্থান করায় তাঁরা প্রাণে বেঁচে যান। কিন্তু তাঁরা দেশে ফিরতে পারেননি। বাবা, মা, ভাইসহ আপনজনদের হারানো বেদনাকে বুকে ধারন করে পরবর্তীতে ৬ বছর লন্ডন ও দিল্লিতে চরম প্রতিকূল পরিবেশে নির্বাসিত জীবন কাটাতে হয়।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ১৯৮১ সালে ১৪-১৬ ফেব্রুয়ারি ইডেন হোটেলে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রয়োদশ জাতীয় কাউন্সিল অধিবেশনে শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে সর্বসম্মতিক্রমে তাঁকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। এ ছিল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তৎকালীন নেতাদের এক দূরদর্শী ও সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত। নানা উৎকণ্ঠা ও অনিশ্চয়তার মধ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তিনি স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সিদ্ধান্ত নেন। বৈরী আবহাওয়া সত্ত্বেও ১৯৮১ সালের ১৭ মে ঢাকা কুর্মিটোলা বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানাতে লাখো মানুষের ঢল নামে। সেদিন বাংলার জনগণের অকৃত্রিম ভালোবাসায় তিনি সিক্ত হন।  

আবদুল হামিদ বলেন, শেখ হাসিনা দেশে ফিরে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ৯০’র গণআন্দোলনের মাধ্যমে স্বৈরাচারের পতন হয়, বিজয় হয় গণতন্ত্রের। ১৯৯৬ সালের ১২ জুন সাধারণ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে জয়লাভ করে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠিত হয়। এ সময় পাহাড়ি-বাঙালি দীর্ঘমেয়াদি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বন্ধে পার্বত্য শান্তিচুক্তি এবং প্রতিবেশী ভারতের সঙ্গে গঙ্গা পানিবণ্টন চুক্তি সই হয়। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচনে তাঁর নেতৃত্বে ১৪ দলীয় জোট সরকার ক্ষমতায় আসে এবং জনগণের কল্যাণে নানামুখী কর্মসূচি গ্রহণ করে। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের রায় কার্যকর করা হয়।

রাষ্ট্রপতি বলেন, গণতন্ত্র, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, নারীর ক্ষমতায়ন, বিদ্যুৎ, তথ্যপ্রযুক্তি, গ্রামীণ অবকাঠামো, বৈদেশিক কর্মসংস্থানসহ নানা কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলতর হয়। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জোট সরকার পুনরায় ক্ষমতায় এসে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রম শুরু ও রায়ের বাস্তবায়নসহ সমুদ্রে বাংলাদেশের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা, ভারতের সঙ্গে দীর্ঘদিনের অমীমাংসিত স্থল সীমানা নির্ধারণ তথা ছিটমহল বিনিময় চুক্তি সম্পাদনের মাধ্যমে সরকার গণমানুষের কল্যাণে নিরলস প্রয়াস চালান। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জোট সরকার টানা তিনবার ক্ষমতায় এসে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে এবং সাফল্যের সঙ্গে সরকার পরিচালনা করছে।

 আবদুল হামিদ বলেন, নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টি, বলিষ্ঠ নেতৃত্ব এবং জনকল্যাণমুখী কার্যক্রমে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। ক্রমাগত প্রবৃদ্ধি অর্জনসহ মাথাপিছু আয় বাড়ছে, কমছে দারিদ্র্যের হার। নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণধীন পদ্মাসেতুর কাজ প্রায় শেষের পথে। মেট্রোরেল, পায়রা গভীর সমুদ্রবন্দর, কর্ণফুলী টানেল, হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল ও রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজও নিরবচ্ছিন্নভাবে এগিয়ে যাচ্ছে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, মহামারি করোনার প্রভাবে গোটা বিশ্বের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়লেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়োচিত ও সাহসী পদক্ষেপের ফলে করোনার প্রভাব মোকাবিলা করে সরকার অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন নিশ্চিতকল্পে সরকারের নানামুখী আর্থ-সামাজিক ও বিনিয়োগধর্মী প্রকল্প, কর্মসূচি এবং কার্যক্রম গ্রহণের ফলে দেশের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়িয়েছে। টেকসই উন্নয়নের এ অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে ২০৪১ সালের মধ্যেই বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে, ইনশাল্লাহ। 

নোয়াখালীতে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

নোয়াখালীতে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

www.noakhalitimes.com
 সদর (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীতে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত হয়েছে। 

সকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভাকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, নোয়খালী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক সহিদ উল্লাহ খান সোহেল, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু।

আলোচনা সভায় বক্তাগণ নিজেদের মধ্যে সব বিভেদ ভুলে আগামী নির্বাচনে আবারও দলকে ক্ষমতায় আনার জন্য শেখ হাসিনর নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ কারার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।
হাতিয়ায় পুকুরে মিলল ৩৫টি ইলিশ

হাতিয়ায় পুকুরে মিলল ৩৫টি ইলিশ

www.noakhalitimes.com
হাতিয়া (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার একটি পুকুরে ৩৫টি ইলিশ মাছ পাওয়া গেছে। খবরটি ছড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

শুক্রবার (১৩ মে) বিকেলে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ‘যুগান্তর কিল্লা’ এলাকায় পুকুরে সেচের সময় জেলেদের জালে মাছগুলো ধরা পড়ে।

এর মধ্যে তিনটির ওজন প্রায় ৯০০ গ্রাম করে। বাকি ৩২টির প্রতিটির ওজন ৩০০ থেকে ৪০০ গ্রামের মধ্যে। কয়েকটি এর ছেয়েও কম ওজনের রয়েছে। মাছগুলো দেখতে আশপাশের লোকজন ভিড় করেন।

স্থানীয় বাসিন্দা আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, নিঝুমদ্বীপের ‘যুগান্তর কিল্লায়’ ৪০ পরিবারের বসবাস। সবাই ওই পুকুর ব্যবহার করেন। এ বছর আমার বাবা আবদুল মান্নান পুকুরটি কিনে সেচের ব্যবস্থা করেন। গত সাতদিন ধরে পানি কমিয়ে শনিবার (১৪ মে) শেষ করার কথা রয়েছে। এর মধ্যে শুক্রবার জাল দিয়ে মাছ তোলার সময় অন্য মাছের সঙ্গে ৩৫টি ইলিশ মাছও ধরা পড়েছে।

নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. নুরুল আফছার দিনাজ পুকুরে ইলিশ মাছ পাওয়ার বিষয়টি সন্ধ্যায় নিশ্চিত করে বলেন, গত বছর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে নিঝুমদ্বীপের প্রায় সবগুলো পুকুর জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যায়। এরমধ্যে যুগান্তর কিল্লার পুকুরটিও জোয়ারের পানিতে নিমজ্জিত হয়। ধারণা করা হচ্ছে ওই জোয়ারে পুকুরটিতে ইলিশ মাছ ঢুকেছিল। সেখানে সেচ দিয়ে আবদুল মান্নান ৩৫টি ইলিশ মাছ পেয়েছেন।

পুকুরের ক্রেতা মো. আবদুল মান্নান বলেন, ‘পানি কমে যাওয়ায় কিছু মাছ তুলে ফেলার পরিকল্পনা নিয়ে জাল ফেলা হয়। সেখানে অন্যান্য মাছের সঙ্গে ৩৫টি ইলিশ মাছ ধরা পড়ায় এলাকার মানুষ তা দেখতে আসেন। সবগুলো মিলিয়ে ১০ কেজির মতো হবে ইলিশ মাছ।’

নোয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন বলেন, ‘পুকুরে ইলিশ হয় বিষয়টি এমন নয়। মূলত জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় তখন ইলিশ পুকুরে এসেছে। নিঝুমদ্বীপ নিম্নাঞ্চল তাই জোয়ারে প্লাবিত হয়। পুকুরটি যখন প্লাবিত হয়েছে, তখন ইলিশ প্রবেশ করেছে। এছাড়া আলাদা কিছু এখানে নেই।’

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. নাজমুস সাকিব খান বলেন, ‘ইলিশ আমাদের জাতীয় সম্পদ। ইলিশ মাছ একটি বিচিত্র বৈশিষ্ট্যের মাছ। জোয়ারের পানি পুকুরে প্রবেশ করলে তখন নোনা পানির সঙ্গে ইলিশও প্রবেশ করতে পারে।

চৌমুহনীতে ২৩৫০লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

চৌমুহনীতে ২৩৫০লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

www.noakhalitimes.com
বেগমগঞ্জ (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীর প্রধান বাণিজ্যকেন্দ্র চৌমুহনীতে অভিযান চালিয়ে দুই প্রতিষ্ঠান থেকে ২ হাজার ৩৫০ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়েছে। এসময় প্রতিষ্ঠান দুটিকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে জব্দকৃত তেলগুলো সাধারণ ভোক্তাদের মাঝে খুচরা মূল্য ১৬০টাকা ধরে বিক্রি করা হয়।

শুক্রবার সকাল থেকে বিকালে পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নোয়াখালীর সহকারি পরিচালক মো. কাউছার মিয়া। অভিযানে সহযোগিতা করেন বেগমগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

এ সময় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. কাউছার মিয়া জানান, বাজার নিয়ন্ত্রণে না আসা পর্যন্ত এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এর আগে বৃহস্পতিবারও চৌমুহনী বাজারের একটি গোডাউন থেকে ২০০ লিটার তেল জব্ধ করা হয়। পরে জব্দকৃত তেলগুলো সাধারণ ভোক্তাদের মাঝে খুচরা মূল্যে বিক্রি করা হয়।